1. zobairahmed461@gmail.com : Zobair : Zobair Ahammad
  2. Jalalhossen555@gmail.com : Jalal Hossen : Jalal Hossen
  3. khorshed.eco@gmail.com : Khorshed Alom : Khorshed Alom
  4. hossaintnt@live.com : Shah Sumon : Shah Sumon
শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৬:০২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ 
চান্দিনার মাধাইয়া বীরপ্রতীক কর্ণেল মোহাম্মদ সফিকউল্লাহ এর নামে সড়কের নামফলক ভাঙ্গচুর কামারখোলা ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামিলি নেটওয়ার্কিং এর ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা সুশীল মুসলমান ভাই-বোনদের জন্য চিন্তার খুড়াক! কওমি শিক্ষক দ্বারা আবার ছাত্র বলাৎকারের ঘটনা ঘটেছে লক্ষীপুর মাত্র ৮ মাসে কুরানের হাফেয: বিস্ময় বালক আরিফ উদ্দিন আরাফ নাস্তিক ও ইসলাম বিদ্বেষীরা কিভাবে মানুষকে ধোকায় ফেলে কুমিল্লা পুলিশ সুপারের দিকনির্দেশনায় ২৪ ঘন্টার মধ্যে আসামী গ্রেপ্তার বিশ্বকে আবারো তাক লাগিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশের কৃষি বিজ্ঞানীরা বাংলাদেশী নাগরিকদের উপর জারিকৃত ভিসা নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো দক্ষিণ কোরিয়া মাটি ব্যবসায়ীদের অবৈধ ট্রলি বাহী ট্রাকের জ্বালায় অতিষ্ঠ ভোমরকান্দি বাসী

প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যারের সান্নিধ্য অর্জন করাটাও একপ্রকার সৌভাগ্যের বেপার

চান্দিনা অনলাইন এক্সপ্লোরার 
  • আপডেট সময়: বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২০৩ বার পড়া হয়েছে 

২০১৩/১৪ সালের দিকে প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যারের সাথে আমার প্রথম পরিচয় হয়। চান্দিনা ছাত্রকল্যাণ সমিতির কোন এক প্রোগ্রামে স্যারকে দাওয়াত দিতে স্যারের সাথে দেখা করতে গিয়েছিলাম। স্যার তখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের চেয়ারম্যান। প্রথম দেখাতেই স্যারের আন্তরিকতা আমাকে মুগ্ধ করেছিলো। কারন জীবনের প্রথমবার দেখা অথচ শুধুমাত্র চান্দিনা বাড়ি শুনেই স্যারের আন্তরিকতা ও আতিথেয়তা ছিলো অসামান্য।

আমাদের প্রোগ্রামের অন্যান্য অতিথিদের দাওয়াত দেওয়ার জন্য উনাদের পিছনে যতটা সময় ব্যয় করা লেগেছে প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যারের সাথে দেখা করতে ততটা সময় ব্যয় করা লাগেনি। শুধুমাত্র চান্দিনা ছাত্রকল্যাণ সমিতির নাম শুনেই আমাদেরকে সময় ও জায়গা বলে দিলেন কোথায় দেখা করতে হবে।

নিজের মাতৃভূমি চান্দিনার প্রতি ছিলো স্যারের অসীম টান ও ভালোবাসা।
২০১৩-১৪ থেকে আমি ছাত্রকল্যাণ সমিতির প্রায় প্রতিটি কমিটিতেই ছিলাম। সেই সুবাধে আমাদের সকল প্রোগ্রামে স্যারকে দাওয়াত দেওয়ার জন্য উনার সাথে দেখা করতে যেতাম। বেশিরভাগ সময় উনার বাসায় গিয়ে দেখা করতাম। আমরা উনার বাসায় গিয়ে নিচতলায় উনার জানিপপ এর অফিসে বসে উনার জন্য অপেক্ষা করতাম। আমরা এসেছি শুনলে উনি নিজেই নিচে নেমে এসে আমাদের সাথে কুশল বিনিময় করতেন এবং উনার বাসার কর্মচারীদের দিয়ে আমাদের আপ্যায়নের ব্যবস্থা করতেন। কিভাবে এসেছি, আসতে কোন সমস্যা হয়েছে কিনা ইত্যাদি ইত্যাদি প্রশ্ন করতেন। আমাদের সাথে যাওয়া অন্যান্য ছাত্রছাত্রীরা স্যারের আন্তরিকতা দেখে অবাক হয়ে যেতেন।

প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যার সময়ের বেপারে অনেক বেশি সচেতন। আমাদের প্রতিটি প্রোগ্রামে স্যার চলে আসতেন অন্যান্য অতিথিরা আসার আগেই। সচরাচর অতিথিবৃন্দ প্রোগ্রামে এসে উপস্থিত হন দর্শক শ্রোতারা আসার পরে। কিন্তু প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যারের টাইম মেইন্টেইন আমাদের সবাইকে অবাক করে দিতো।

প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও স্যারের স্মার্ট ও গঠনমুলক আলোচনা যেকোন প্রোগ্রামকে করে তুলতো অনেক বেশি প্রাণবন্ত। অনেক দর্শক শ্রোতা আমাদের প্রোগ্রামে আসতো শুধুমাত্র স্যারের আলোচনা শুনবার জন্য। বিশেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থী স্যারের বক্তব্য শুনবার জন্য অধির আগ্রহে অপেক্ষা করতো।
কারন স্যারের বক্তব্যে অনেক বেশি তথ্য থাকতো।
অপ্রাসঙ্গিক কোন বিষয় স্যারের বক্তব্যে থাকতোনা। তাই স্যারকে আমরা সমসময় স্মার্ট বক্তা হিসেবে জানি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন গ্রেড ১ প্রফেসর এবং জাতীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষণ পরিষদ(জানিপপ) এর চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায়ও উনি চান্দিনার ছাত্রকল্যাণ, যুবকল্যাণ তথা চান্দিনার মানুষদেরকে যেভাবে সময় দিতেন ও গুরুত্ব দিতেন তা আমাদের কাছে স্বপ্নের মতো মনে হতো। উনার মধ্যে কোন অহংকার ছিলোনা।
আর এজন্য হয়তো আল্লাহ উনাকে এতোটা সফলতা দিয়েছেন।

এসব ভালো মানুষের জন্য মন থেকে দোয়া চলে আসে। আল্লাহ উনাকে সুস্থ রেখে দেশ ও জাতির কল্যানে কাজ করার সুযোগ দান করুক আমিন।

লেখাটি শেয়ার করুন 

আপনার মতামত লেখুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো খবর 
© All rights reserved © 2020 ChandinaOnlineExplorer.com
Theme Customized BY LatestNews